Sunday, June 27, 2010

নেভারেস্ট: পর্ব ০

গত ২৩ মে মুসা ইব্রাহীম এভারেস্ট শীর্ষ জয় করেন বলে খবর আসে। মুসা ইব্রাহীমের বন্ধু জিয়াউল খালেদ ব্লগে এ খবরটি প্রথম জানান, পরদিন তা ৎসুনামির মতো ছড়িয়ে পড়ে প্রথম আলো ও ডেইলি স্টারের প্রচারগুণে।

খবরটি নিয়ে দুয়েকজন পর্বতারোহী সন্দেহও প্রকাশ করেন। সচলায়তনেই মুস্তাফিজ ভাই পর্বতারোহী সজল খালেদের বরাত দিয়ে একটি পোস্টে সন্দেহের স্বরূপটি তুলে ধরেন।

বিশ্বাসের মতো অবিশ্বাসও গড়ে ওঠে আপাতদৃষ্টিতে তাৎপর্যপূর্ণ, কিন্তু অপ্রমাণিত তথ্যের ওপর। মুসা ইব্রাহীমের এভারেস্ট শীর্ষ জয় নিয়ে আমার প্রাথমিক উচ্ছ্বাস কেটে যায় দুয়েকটি তথ্য জেনে। যেহেতু নিছক সন্দেহের বশে কোনো বড় প্রাপ্তিকে উড়িয়ে দেয়া যায় না, আমি তাই প্রমাণ সংগ্রহের চেষ্টা শুরু করি। গত ৫ সপ্তাহে আমি আমার অবিশ্বাসের সপক্ষে এবং বিপক্ষে কিছু তথ্য সংগ্রহ করেছি, সাক্ষাৎকার নিয়েছি এই ঘটনার সাথে পরোক্ষভাবে জড়িত কয়েকজন ভিনদেশী পর্বতারোহীর। "নেভারেস্ট" সিরিজে আমি ৫টি পর্বে এ তথ্যগুলো তুলে ধরবো।

মুসা ইব্রাহীমের সাথে আমার পূর্বপরিচয় নেই, তাই তাঁর প্রতি অনুরাগ বা বিরাগের প্রশ্ন আসে না। "মুসা ইব্রাহীম এভারেস্টে ওঠেনি", এমন কোনো স্টেটমেন্ট দেয়াও আমার উদ্দেশ্য নয়। আমি শুধু আমার অবিশ্বাসটুকু ব্যবচ্ছেদ করে দেখতে আর দেখাতে চাই।

এই সিরিজে আমি পাঠকদের [বিশ্বাসী ও অবিশ্বাসী] কাছ থেকে মন্তব্য হিসেবে কেবল যুক্তির কাঠামোর ভেতরে থেকে উৎসারিত বক্তব্য গ্রহণ করতে ইচ্ছুক। মুসা ইব্রাহীম বা আমার প্রতি ব্যক্তি আক্রমণকে নিরুৎসাহিত করা হবে। আপনাদের অংশগ্রহণে বিতর্ক আরো প্রাণবন্ত হবে, এ আশা আছে।

No comments:

Post a Comment

রয়েসয়েব্লগে মন্তব্য রেখে যাবার জন্যে ধন্যবাদ। আপনার মন্তব্য মডারেশন প্রক্রিয়ার ভেতর দিয়ে যাবে। এর পীড়া আপনার সাথে আমিও ভাগ করে নিলাম।