Friday, April 16, 2010

পাইরেট অব দ্য ব্যাবিলোনিয়ান

ইরাকে মার্কিন বাহিনী জবরদখল ও হামলা চালানোর পর সিরিয়া-ইরাক সীমান্তে একটি টহল দল আচমকা আবিষ্কার করে একটি প্রাচীন পাথরের গর্ভগৃহ। তারা প্রথমে আলকায়েদার আস্তানা ভেবে সেখানে বিমান হামলার পরিকল্পনা করে, কিন্তু কী ভেবে তাদের ইউনিটের প্রধান ব্যাপারটি ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের নজরে আনে। পেন্টাগন থেকে তখন নিয়োগ করা হয় কয়েকজন পুরাতত্ত্ববিদকে। তারা সেই গর্ভগৃহ থেকে উদ্ধার করেন একটি মাত্র কাদার চাকতি, যার ওপর কিউনিফর্ম লিপিতে খোদিত রয়েছে একটি বিশাল বাণী।

পরিবহনের সময় চাকতিটির বেশ কিছু অংশ ভেঙে টুকরো টুকরো হয়ে যায়, অক্ষত অবশিষ্টাংশ এবং টুকরোগুলো নিয়ে স্মিথসোনিয়ান ইনস্টিটিউটকে দায়িত্ব দেয়া হয় এ লিপি পাঠোদ্ধারের। টুকরোগুলোকে কীভাবে আবার জোড়া দিয়ে পাঠোদ্ধার করা যায়, সে নিয়ে গবেষণা চলছে, অক্ষত অংশটুকুর বঙ্গানুবাদ তুলে দিচ্ছি।

"... দেবতা নাবুর স্নেহধন্য সম্রাট নাবু-কুদুরি-উসুর এর প্রধান অভিলেখাগারে এখন হাবুরু নামের একটি পাইরেটেড স্টাইলাস দিয়ে ইউনিকোড কিউনিফর্ম লিপি খোদাই করা হচ্ছে। আমি, জব্দফা মুশতার এর বিরোধিতা করি, এবং সম্রাট নাবু-কুদুরি-উসুরের পদতলে লম্বালম্বি শুয়ে পড়ে কাতর কাকুতিমিনতি করি, এই হাবুরু নামক পাইরেটেড স্টাইলাসটিকে ধ্বংস করে আমি, ডিজিটাল ব্যাবিলনের প্রণেতা জব্দফা মুশতার কর্তৃক উদ্ভাবিত বিজিহি স্টাইলাস দিয়ে অভিলেখাগারের সকল কাদার চাকতি লিপিবদ্ধ করা হোক। এই হাবুরু স্টাইলাসের কারণেই অভিলেখাগারে সেদিন দুইটি তস্কর প্রবেশের সুযোগ পেয়েছিল। নাবু ও মারদুকের কসম, হাবুরু স্টাইলাস ধ্বংস হোক, তার প্রণেতা দুষ্ট বালকগুলির দুই হাত ধ্বংস হোক।

সম্রাট নাবু-কুদুরু-উসুরের পদতলে শুয়ে আমি আরো জানাতে চাই, হাটবাজারে প্রচলিত গুজব, যা দুষ্ট মানুষরা ছড়ায়, যারা কি না মেদেস রাজ্যের কুষ্ঠ রোগাক্রান্ত গাধার লেজে মাছির মতন ভনভন করে, সেই গুজব, অর্থাৎ আমার বিজিহি স্টাইলাসটি আমি আমার স্ত্রীর ভগ্নির স্বামীর কাছ থেকে প্রতারণাপূর্বক আদায় করেছি, তা সর্বৈব মিথ্যা। সম্রাটের প্রতি অনুরোধ, হাবুরু স্টাইলাসকে ধ্বংস করুন, এর প্রণেতাদের গেহেন্না মরুভূমিতে নিক্ষেপ করুন, গুজব রটনাকারীদের মস্তক ছিন্ন করতে আদেশ করুন।

মারদুক সম্রাট নাবু-কুদুরু-উসুরের আয়ু অক্ষয় করুন। মারদুকের দুয়ারে কাতর মিনতি জানায় জব্দফা মুশতার, তার কৃপাপ্রার্থী ..."

টীকাঃ
নাবু-কুদুরু-উসুর নেবুচাদনেজারের ব্যাবিলনীয় নাম।

No comments:

Post a Comment

রয়েসয়েব্লগে মন্তব্য রেখে যাবার জন্যে ধন্যবাদ। আপনার মন্তব্য মডারেশন প্রক্রিয়ার ভেতর দিয়ে যাবে। এর পীড়া আপনার সাথে আমিও ভাগ করে নিলাম।