Friday, October 23, 2009

আপ



পিক্সার অ্যানিমেশন স্টুডিওস এখন একটা প্রতিশ্রুতির সমার্থক হয়ে দাঁড়িয়েছে। পিক্সার মানেই দুর্দান্ত, মনে ছাপ ফেলে যাওয়া কোনো অ্যানিমেশন।

আপ [UP] এর পরিচালক পিট ডক্টার এর করা আগের অ্যানিমেশনের নামটা শুনলেই চোখকান বুঁজে আপ দেখতে বসে পড়া উচিত। ইনিই মনস্টারস ইনকরপোরেটেড এর পরিচালক।

আপের কাহিনীর কিসিম মনস্টারস ইনকরপোরেটেডের মতোই অভিনব। কার্ল ফ্রেডরিকসন আর তার স্ত্রী এলির ভালোবাসার কাহিনী গোটা সিনেমা জুড়ে, যদিও এলি কয়েক মিনিটের মধ্যেই কার্লের সাথে তার গোটা জীবন কাটিয়ে মারা যায়। আনফরগিভেন-এ যেমন বিগতা স্ত্রীর প্রতি উইলিয়াম মানি-র ভালোবাসাই গোটা সিনেমার উপজীব্য, আপ-এও তেমনি।

কার্ল ফ্রেডরিকসন স্বভাবে একটু গম্ভীর, এলি ছটফটে, চঞ্চল। শৈশব থেকে তার পরিকল্পনা, দক্ষিণামেরিকায় এক জলপ্রপাত দেখতে যাবে সে, ওটাই তার জীবনের লক্ষ্য। সেই অ্যাডভেঞ্চারের স্বপ্নে সঙ্গী হয় প্রতিবেশী বালক কার্ল, যাকে নিয়ে এলি সংসার শুরু করে এক পর্যায়ে, একসাথে তারা বুড়ো হয়, একসাথে বেড়াতে যায় বাড়ির কাছের ছোট্ট টিলার ওপরে. এবং একদিন বেড়াতে গিয়ে এলি আর টিলার চূড়ায় পৌঁছুতে পারে না। কার্ল একটা বেলুন হাতে একা বাড়ি ফেরে এলির সৎকার করে।

কিন্তু ঐ যে প্রতিশ্রুত অ্যাডভেঞ্চার, দু'জনে মিলে তারা বেড়াতে যাবে জলপ্রপাতে, যার নাম প্যারাডাইস, তার কী হবে? নিঃসঙ্গ কার্লের মন টেকে না ঘরে। আর ঘরের চারপাশটাও অচেনা হয়ে ওঠে আস্তে আস্তে, চেনা চারপাশ পাল্টে যেতে থাকে ডেভলপারের দৌরাত্ম্যে। একদিন কার্ল হাজার হাজার ফানুশ ফোলায় হিলিয়াম দিয়ে, তারপর বাড়ির সাথে বেঁধে সে উড়াল দেয় বাড়িশুদ্ধু। গন্তব্য, দক্ষিণামেরিকা। ননস্টপ প্যারাডাইস জলপ্রপাত, গেটলক।

অবশ্য গেটলক আর থাকে না শেষ পর্যন্ত। কার্লের সেই অ্যাডভেঞ্চার মোচড় নেয় অন্যদিকে, সঙ্গী হয় ক্ষুদে ক্যাম্পার বালক রাসেল, এবং আরো বিস্ময়কর সব চরিত্র। সিনেমার রাস্তা বার বার মোচড় খায়। পঁচানব্বই মিনিটের সিনেমা গোটা সময় ধরেই দর্শককে চুম্বকের মতো ধরে রাখতে পারে। পিট ডক্টারের সার্থকতা ওখানেই।

হোক অ্যানিমেশন, আপ ঠিক যেন শিশুতোষ নয়। কিন্তু তারপরও মনে হয়, এমন সিনেমাই তো বাচ্চাদের দেখানো উচিত। অনিঃশেষ ভালোবাসার গল্প, যা মানুষকে ধরে রাখে মানুষের সাথে, কার্ল আর এলির মতো একসাথে ভালোবেসে বুড়ো হবার পথ দেখায়। এলির অ্যাডভেঞ্চারের খাতা যেন সে কারণেই শুরু হয় নানা ফ্যান্টাসি দিয়ে, সামনে বাড়ে আর শেষ হয় কার্লের সাথে তার যাপিত জীবনের টুকরো টুকরো সব ছবি দিয়ে। সিনেমা শেষ করে স্তব্ধ মনে বসে ভাবি, মানুষ মানুষের জন্যে ... সে এক অ্যাডভেঞ্চারই বটে!

[hr]

Veuillez installer Flash Player pour lire la vidéo

.
.
পার্টলি ক্লাউডি
.
.
.


.
.
আপ

No comments:

Post a Comment

রয়েসয়েব্লগে মন্তব্য রেখে যাবার জন্যে ধন্যবাদ। আপনার মন্তব্য মডারেশন প্রক্রিয়ার ভেতর দিয়ে যাবে। এর পীড়া আপনার সাথে আমিও ভাগ করে নিলাম।