Saturday, September 05, 2009

বার্মার সাথে বাংলাদেশের আন্তরাষ্ট্রীয় সম্পর্ক

প্রতিবেশী যদি মারমুখো অগণতান্ত্রিক হয়, তাহলে সমস্যাগুলি নিয়মিত বিরতিতে মাথাচাড়া দিতে শুরু করে। অদূর ভবিষ্যতে বার্মাকে নিয়ে আমরা এসব সমস্যার মুখোমুখি হতে পারি।

বার্মার সাথে বাংলাদেশের সমস্যাগুলো সাদা চোখে এমনঃ

1. বার্মার সাথে বাংলাদেশের সমুদ্রসীমা নিয়ে দুই রাষ্ট্রের মধ্যে মতানৈক্য রয়েছে। বার্মার কোস্টগার্ডের সহযোগিতায় নাফ নদীতে প্রায়শই বাংলাদেশী ট্রলারের ওপর হামলা হয়, এমনকি গভীর সমুদ্রে বর্মী জলদস্যুরা যথেচ্ছ দস্যুবৃত্তি করে, বর্মী বা বাংলাদেশী কোস্টগার্ডের কাছ থেকে প্রতিকার মেলে না। সমুদ্রসীমা নিয়ে বিতর্কের কারণে সমুদ্রবক্ষে তেল বা গ্যাসের অনুসন্ধান নিয়েও জটিলতায় ভুগছে বাংলাদেশ।

2. মুসলিম অধ্যুষিত আরাকানে বর্মী বাহিনী অস্ত্রের মুখে রোহিঙ্গা জনগোষ্ঠীকে বাংলাদেশের সীমান্তের ভেতরে পুশ-ইন করছে নিয়মিত। বাংলাদেশের সীমান্তবর্তী অঞ্চলের প্রভাবশালীদের কারণে এই রোহিঙ্গারা বাংলাদেশে সেটল করে নানা অপরাধে জড়িয়ে পড়ছে, এমনকি বাংলাদেশী পাসপোর্ট নিয়ে বিভিন্ন দেশে গিয়ে অপরাধে জড়িয়ে পড়ে বাংলাদেশের জনশক্তি রপ্তানিকে বিপন্ন করছে।

বার্মার সাথে সুসম্পর্ক বাংলাদেশ স্বাভাবিকভাবেই বজায় রাখতে চায়। সড়কপথে বার্মার সাথে যোগাযোগ বৃদ্ধির আলাপ চলছিলো গত তত্ত্বাবধায়ক সরকারের আমলে। এ-ও শুনেছিলাম, বার্মার বিস্তৃত সমুদ্রতীরবর্তী পোড়ো জমি বাংলাদেশী কৃষকদের দিয়ে চাষ করানো হবে মুনাফা ভাগাভাগির ভিত্তিতে। এসব সম্ভাবনা এখন দূরবর্তী মনে হচ্ছে।

বাংলাদেশে সম্প্রতি প্রাকৃতিক গ্যাসের যে সংকট দেখা দিয়েছে, এর প্রেক্ষিতে বার্মার সাথে সম্পর্কোন্নয়নের মাধ্যমে দুই দেশের মধ্যে গ্যাস বাণিজ্যের পথ উদার করার উদ্যোগ পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় থেকে নেয়া উচিত। প্রয়োজনে আমাদের বাপেক্স বার্মায় গ্যাস অনুসন্ধানের প্রস্তাব দিতে পারে বার্মার জান্তা সরকারকে, যেভাবে ইউনোকল-অক্সিডেন্টাল-কেয়ার্ন-শেভরন আমাদের দেশে অনুসন্ধান চালায়। গ্যাসক্ষেত্রে আবিষ্কৃত হলে উভয় দেশের মধ্যে সমঝোতার ভিত্তিতে এই গ্যাসের কিছুটা অংশীদারিত্বের ভিত্তিতে আর কিছুটা বাজারদরে কিনে এনে দেশের গ্রিডে সংযোগ করা যেতে পারে। এতে করে বাংলাদেশ যেমন জ্বালানি সংকট থেকে উত্তরণের পথ খুঁজতে পারে, তেমনি বাপেক্সকে পঙ্গু করে রাখার চর্চাটাও বন্ধ থাকতে পারে কিছুদিন।


[]

No comments:

Post a Comment

রয়েসয়েব্লগে মন্তব্য রেখে যাবার জন্যে ধন্যবাদ। আপনার মন্তব্য মডারেশন প্রক্রিয়ার ভেতর দিয়ে যাবে। এর পীড়া আপনার সাথে আমিও ভাগ করে নিলাম।