Friday, May 15, 2009

সরিষা ফুলের অন্য রঙের কালটিভ্যার তৈরি করা কি সম্ভব?

আইডিয়াটি আমার নয়। দুলাল ভাইয়ের। তাঁকে আপনার চেনেন না সবাই, তবে মিসেস দুলাল সচলে সবার কাছেই কমবেশি পরিচিতা।

দুলাল ভাই আমাদের এইন্ডহোফেন থেকে কয়কেনহোফে নিয়ে যাচ্ছিলেন গাড়ি ড্রাইভ করে। নানা বিষয় নিয়ে আলাপ হচ্ছিলো। দুলাল ভাই এমনিতে স্বল্পবাক মানুষ হলেও যথেষ্ঠ মজলিসি, তাই আড্ডা সেদিন সকাল থেকে রাত পর্যন্তই চলছিলো।

[img=auto]http://upload.wikimedia.org/wikipedia/commons/c/ce/Brassica_napus_2.jpg[/img]শ্খিপহোল বিমানবন্দর পেরিয়ে যখন লিসে শহরে ঢুকতে যাচ্ছি আমরা, তখন পথের পাশে হলুদ সরিষা [ঠিক আমাদের সরিষা নয়, এদিকটায় যা ফলে তা হচ্ছে রাপ্স বা রেইপসিড, বাংলায় একে কী বলে আমি ঠিক জানি না, তবে এর তেলই রান্নার কাজে ব্যবহার করি। এটিও সরিষার পরিবারভুক্ত (Brassicaceae), তবে প্রজাতি আলাদা।] দেখে দুলাল ভাই আইডিয়া দিলেন, কেউ যদি সরিষার জিনে কোন গিয়ানজাম পাকিয়ে এর ফুলের রংকে হলুদের পাশাপাশি অন্য কোন উজ্জ্বল রং করে দিতে পারে, তাহলে এক সরিষা দিয়েই ক্ষেতে এক দারুণ নকশা তৈরি করা যেতে পারে। তার কাছে কয়কেনহোফের টিউলিপবাগানের সৌন্দর্যও তুশ্চু হবে।

আইডিয়াটা আমার মাথায় অনেকক্ষণ ধরে কামড়াচ্ছিলো, তাই শেয়ার করছি সবার সাথে। এরকম কিছু আদৌ অসম্ভব নয়, ক্রিসেনথিমামের শত শত বিভিন্ন রঙের কালটিভ্যার উদ্ভাবিত হয়েছে গত কয়েকশো বছরে। কিন্তু সরিষা যেহেতু বাণিজ্যিক ফসল, তাই শুধু এর রঙের কথা ভাবলেই চলবে না, ভিন্ন রঙের সরিষার বিকাশ, ফলন এসবও হিসেবে থাকতে হবে। আমি যতদূর জানি, সরিষা পতঙ্গপরাগায়িত ফসল, মৌমাছি এর পরাগায়নে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে। ফুলের রং পাল্টালে মৌমাছি আর আকৃষ্ট হবে কি না, সেই গুহ্যবিদ্যা আমার জ্ঞানের দৌড়ের বাইরে।

কিন্তু হলুদ সরিষার বীজের সাথে যদি লাল, কমলা, টিয়া, ম্যাজেন্টা, নীল আর বেগুনী সরিষার বীজ মিশিয়ে কোন ক্ষেতে চাষ করা যায়, তাহলে ওপর থেকে যে দারুণ মোজাইক ফুটে উঠবে, তার কথাই মশগুল হয়ে ভাবছি।

[hr]ছবিসূত্রঃ উইকিপিডিয়া।

[]

No comments:

Post a Comment

রয়েসয়েব্লগে মন্তব্য রেখে যাবার জন্যে ধন্যবাদ। আপনার মন্তব্য মডারেশন প্রক্রিয়ার ভেতর দিয়ে যাবে। এর পীড়া আপনার সাথে আমিও ভাগ করে নিলাম।