Friday, March 06, 2009

ণ-ত্ব বিধান গল্পমালা (গল্প ১)

ব এর সাথে ন এর খুব দোস্তি ছিলো। প্রায়ই তারা একসাথে ঘোরাঘুরি করতো। ভবনে, পবনে, বনে, জীবনে, যৌবনে।

ড় এর সাথেও ন এর সম্পর্ক ভালো ছিলো। তাই তার সাথেও সে ঘোরাঘুরি করতো, প্রায়ই। তাড়না, বুঝলেন, তাড়না।

একদিন ন এর সাথে দেখা হলো ব-এ শূন্য র এর। ন একগাল আহ্লাদি হাসি নিয়ে র এর পাশে গিয়ে বসলো।

র চোখ লাল করে কিছুক্ষণ আগাপাস্তলা ন কে খুঁটিয়ে দেখে, বললো, "তর মাথায় টুপি ক্যা?"

ন ভ্যাবাচ্যাকা খেয়ে বললো, "আমার মাথায় তো সবসময়ই টুপি!"

র ন এর দিকে রক্তচক্ষু তাগ করে বললো, "তর তো সাহস কম না! টুপি না খুইলা বইলি আমার বগলে? জানস আমি কুন বাড়ির পুলা? টুপি খুল!"

ন প্রতিবাদ করার চেষ্টা করে। বলে, "আমি তো ব এর সাথে টুপি নিয়েই ঘোরাঘুরি করি। কই ব তো কোনদিন আপত্তি করে নাই!"

র বলে, "তো কী উইছে?"

ন বলে, "তুমিও তো দেখতে ব এর মতোই?"

র বলে, "তুই তো দেক্তে ×××র পুলাগো মত! তলে তাকা, তলে তাকা বিয়াদ্দপ কুনহানকার!"

ন ভালোমতো নিচে তাকিয়ে র এর ফুটকি (মনোযোগ দিয়ে পড়তে হবে, ফুটকি বলেছি কিন্তু) দ্যাখে। তারপর বলে, "তো কী হইসে? ড য়ে শূন্য ড় এর সাথেও তো আমি ঘোরাঘুরি করি। ওরও তো ফুটকি আছে। কই ড় তো কোনদিন টুপি নিয়ে আপত্তি করে নাই!"

এইবার র উঠে ঠাস ঠাস করে দুইটা থাবড়া কষায় ন এর গালে। "মুখে মুখে কতা কস ক্যা রে বিজারমা পুলা? টুপি খুল!"

ন কাঁদতে কাঁদতে টুপি খুলে ণ হয়ে যায়।



তাই ভাইসব, মনে রাখবেন, র এর পর ন বসে শুধু তদ্ভব আর প্রাকৃত শব্দে, যেখানে কোন গাজোয়ারি নাই। তৎসম শব্দে তাই আমরা দেখি, কাঁচুমাচু মুখে র এর পর চলছে ণ। যেমন কারণ, বারণ, শরণ, হরণ, হরিণ, করুণ, তরুণ, বরুণ, স্বৈরিণী, তরণী, অরণি।

আর র এর কাছে থাপ্পড় খেয়ে ন কিছু কিছু জায়গায় ব এর সাথেও সাবধানে চলাফেরা করে। যেমন শ্রাবণে, রাবণে, লবণে।


[]

1 comment:

  1. ভালো হইছে, পইড়া মজা পাইছি!

    ReplyDelete

রয়েসয়েব্লগে মন্তব্য রেখে যাবার জন্যে ধন্যবাদ। আপনার মন্তব্য মডারেশন প্রক্রিয়ার ভেতর দিয়ে যাবে। এর পীড়া আপনার সাথে আমিও ভাগ করে নিলাম।