Monday, January 19, 2009

দু'টি গান

১.
দীর্ঘদিন ধরে পর্যবেক্ষণ করে দেখেছি, বসন্ত নয়, আমার শরীরে বার্ষিক ফুল্ল, প্রেমোৎসুক, লুল্পুরুষালি অনুভূতি আসে শীতে। এর কারণ কী, জানি না।

২.
মনে একটা ক্যামঞ্জানি ক্যামঞ্জানি ভাব। কী যেন নেই। কী যেন হয়ে উঠছে না। উচাটন হয়ে থাকে মন। অস্থির হয়ে গুনগুন করি। ঘুরেফিরে দেখি এই গানটা ফিরে আসে ঠোঁটে।

Dibosh rojoni ami ...



বাণী খুউব খিয়াল কইরা।[quote]

দিবস রজনী আমি যেন কার আশায় আশায় থাকি
তাই চমকিত মন চকিত শ্রবণ তৃষিত আকূল আঁখি

চঞ্চল হয়ে ঘুরিয়ে বেড়াই
সদা মনে হয় যদি দেখা পাই
কে আসিল বলে চমকিয়ে চাই
কাননে ডাকিলে পাখি
দিবস রজনী আমি যেন কার আশায় আশায় থাকি

জাগরণে তারে না দেখিতে পাই থাকি স্বপনের আশে
ঘুমের আড়ালে যদি ধরা দেয় বাঁধিব স্বপন-পাশে
এতো ভালবাসি এত যারে চাই
মনে হয় না তো সে যে কাছে নাই
যেন এ বারতা ব্যাকুল আবেগে তাহারে আনিবে ডাকি[/quote]


৩.
কিন্তু আর কতো? প্রকৃতির অমোঘ নিয়মেই যা ঘটার ঘটে যায়। যা হবার তা হয়। কিন্তু সেই না হবার স্মৃতি কি ভোলা এত সহজ রে মন? সেই দুঃসহ ক্যামঞ্জানি ভাব স্মরণ করেই গুনগুন করি দ্বিতীয় গান।


shey chole geche b...


এর বাণীও সিরিকাস।

[quote]সে চলে গেছে বলে কি গো স্মৃতিও হায় যায় ভোলা?
আজও মনে হলে তার কথা, আজও মর্মে যে মোর দেয় দোলা।

ঐ প্রতিটি ধূলিকণায়
আছে তার ছোঁয়া লেগে হেথায়
আজও তাহারি আসার আশায় রাখি মোর ঘরের সব দ্বার খোলা।
সে চলে গেছে বলে ...

হেথা সে এসেছিলো যবে
ঘর ভরেছিলো ফুল-উৎসবে
মোর কাজ ছিলো ভবে শুধু তার হার গাঁথা আর ফুল তোলা।
সে নাই বলে বেশি করে
শুধু তার কথাই মনে পড়ে
হেরি তার ছবি ভূবন ভরে
তারে ভুলিতে মিছেই বলা
[/quote]

৪.
এইবার বলেন, হাগা হচ্ছিল না ক্যান? কী করলেই বা আরো ঘন ঘন হবে? নিয়মিত, সাধারণ আটপৌরে হাগনচক্র চালানো যায় কী খেলে?

হাগা না হলে দুনিয়াটাই হাগাময় লাগে। প্যাথেটিক। বিশেষ করে কাননে পাখি ডাকার ব্যাপারটা। ঘরের জানলা খুলি, ভেন্টিলেশন দরকার। এত সালফার কীসের সাথে খাও রে মন?

1 comment:

  1. হাগাসংক্রান্ত সমস্যার সমাধান দিতে পারছি না বলে দুঃখিত!
    দিবস রজনী...তে শেষ লাইনে 'বারতা'র বদলে 'বাসনা' হবে কি?

    ReplyDelete

রয়েসয়েব্লগে মন্তব্য রেখে যাবার জন্যে ধন্যবাদ। আপনার মন্তব্য মডারেশন প্রক্রিয়ার ভেতর দিয়ে যাবে। এর পীড়া আপনার সাথে আমিও ভাগ করে নিলাম।