Wednesday, July 02, 2008

প্রবাসে দৈবের বশে ০৪২

১.
পরীক্ষার মৌসুম চলছে। সচলের জন্মদিনেই ছিলো প্রথম পরীক্ষা, বৈশ্বিক শক্তিপরিস্থিতি ও পরিবেশগত ফল। পরীক্ষা খারাপ হয়নি। আরো কতগুলি ফাও ভ্যাজালে আটকে ছিলাম, সেগুলির হাত থেকেও বেশ বিস্ময়করভাবে মুক্তি পেয়েছি ৩০শে জুন। একসাথে এতগুলি সুখবরের সমাপতন হবার পর হের চৌধুরীকে ফোন দিয়ে জানলাম, তাঁরও পরিসংখ্যান দ্বিতীয় ভাগ পরীক্ষা শেষ। সচলের প্রথম বর্ষপূর্তি উদযাপন করার জন্যে তাই গেলাম টেগুটে, কড়া পানীয় কিনতে। টেগুটে হাভানা ক্লাবের ওপর বিশেষ ছাড় ধরা হয়েছে, চৌধুরী আর আমি দু'জনেই বেশ রামনিষ্ঠ বলে হাভানা ক্লাবই কেনা হলো।

এরপর হানা দিলাম রুশ দোকানে। কাসেলে ভালো মাছ খুব বেশি জায়গায় পাওয়া যায় না, জার্মান মাছ খেতে চাইলে রেয়াল, আর নাম না জানা সব মাছ খেতে চাইলে রুশ দোকানই আমাদের গন্তব্য। যদিও মাছ নয়, নিষিদ্ধ মাংসের খোঁজেই সেখানে যাওয়া, কিন্তু বোতল বিভাগের সামনে আমি আর চৌধুরী ট্যুরিস্টের মতো দাঁড়িয়ে গেলাম। ঠিক করলাম, এ ব্যাপারে বিশেষজ্ঞের পরামর্শ ছাড়া এগোনো ঠিক হবে না। চৌধুরী মস্তোভস্কায়া আর স্তলিচনায়ার ভক্ত, কিন্তু রুশ দোকানে সেগুলি পাওয়া যায় না। অতএব, বিশেষজ্ঞ হিসেবে সংসারে এক সন্ন্যাসীর পরামর্শ নিয়েই পরবর্তী পরিস্থিতিতে আবার এখানে খোঁজ নেয়ার পরিকল্পনা চূড়ান্ত করে পৌনে এক কেজি বদমাংস বগলদাবা করে আবার রামের কাছে ফিরে গেলাম। আজ সচল খুলে দেখি আমরা একা নই, আরো অনেকেই কিছু কিছু পান করেছেন।

ভাজা বদমাংস দিয়ে আধবোতল রাম খেয়ে মাতাল হওয়া যায় না, কিন্তু মনটা খুশি হয়ে যায়। পয়লা জুলাই তাই বেশ খুশিই ছিলাম। ভবিষ্যতে, ভাবছি, বাঈজীর নাচসহ এই পানভোজন করা যায় কি না।

২.
গত একমাসে বিভিন্ন ক্লান্তিকর ও উদ্বেগজাগানিয়া কাজের ফাঁকে ফাঁকে দেখলাম বেশ কিছু সিনেমা। কুং ফু পান্ডা দারুণ লেগেছে, ক্লাসিক কিছু হংকং সিনেমার কাছ থেকে কিছু আইডিয়া ধার করা হলেও সব মিলিয়ে চমৎকার অ্যানিমেশন হয়েছে। ভালো লেগেছে ইন ব্রুঝ, বেলজিয়ামের ব্রুঝ শহরে তিন আততায়ীকে নিয়ে কাহিনী। পুরনো কিছু হলিউড ক্লাসিক দেখলাম, চমৎকার লেগেছে শ্যারেইড, অড্রি হেপবার্নকে যতবার দেখি ততবারই মুগ্ধ হই। খুঁজছিলাম জন ক্লিজের কিছু না দেখা কমেডি, কেবল ক্লকওয়াইজ খুঁজে পেলাম, ভালো লেগেছে দেখে। আ ফিশ কল্ড ওয়্যান্ডা অনেকবার দেখেছি, আবার দেখতে চেয়েছিলাম স্প্লিটিং হেয়ার্স আর ইয়েলোবেয়ার্ড, কিন্তু খুঁজে পেলাম না। বহু পুরনো ক্লাসিক কমেডি ইটস আ ম্যাড, ম্যাড, ম্যাড, ম্যাড ওয়ার্ল্ড আর অ্যাডভান্স টু রিয়ার খুঁজে পেয়ে দেখলাম। খুঁজছিলাম শন কোনারি অভিনীত দুর্দান্ত কমেডি দ্য গ্রেট ট্রেন রবারি, কিন্তু পাইনি। কুবরিকের ড. স্ট্রেঞ্জলাভঃ হাউ আই লার্নড টু স্টপ ওয়রিইং অ্যান্ড লাভ দ্য বম্ব আর ফুল মেটাল জ্যাকেট দেখলাম আবারও।

[]

No comments:

Post a Comment

রয়েসয়েব্লগে মন্তব্য রেখে যাবার জন্যে ধন্যবাদ। আপনার মন্তব্য মডারেশন প্রক্রিয়ার ভেতর দিয়ে যাবে। এর পীড়া আপনার সাথে আমিও ভাগ করে নিলাম।