Sunday, April 20, 2008

ব্যাটাছেলেদের রেসিপি

উপকরণঃ

১ কেজি গরুর মাংস
১ কেজি মুরগির মাংস
১ কেজি খাসির মাংস
১ কেজি আলু
১ কেজি পেঁয়াজ
১ কেজি রসুন
১ কেজি আদা
১ কেজি গুঁড়া হলুদ
১ কেজি গুঁড়া মরিচ
১ কেজি গুঁড়া ধনিয়া
১ কেজি গুঁড়া জিরা
১ কেজি কাঁচামরিচ
১ কেজি নাম-না-জানা-বিখাউজ-মশল্লা
১ কেজি সূর্যমুখীর তেল
১ কেজি পোলাওয়ের চাল
১ কেজি মটরশুঁটি
১ কেজি ডাল
১ কেজি পটেটো চিপস
১ কেজি চাপাতা
১ কেজি চিনি
১ কেজি গুঁড়ো দুধ
১ কেজি লেবু
১ কেজি লবণ
অনুর্ধ্ব ৫২ কেজি ওজনের দু'জন স্ত্রী

সব ১ কেজি করে কিনতে হবে। এতে করে ফালতু ওজনের ঝামেলা থাকবে না। কোথাও ২০০ গ্রাম, কোথাও আড়াইশো মিলিলিটার, কোথাও আন্দাজমতোর ঝামেলা আপনাকে পোহাতে হবে না। স্ত্রী দু'জনকেই মাঝে মাঝে এক এক করে কোলে নিয়ে মেপে দেখে নেবেন ওজন ঠিকাছে কি না।

প্রস্তুতপ্রণালীঃ

ঘামতে ঘামতে এসব জিনিস নিয়ে রিকশা থেকে নামুন। তারপর চোখ গরম করে রিকশাঅলাকে ভাড়া মিটিয়ে বিদায় করুন। কটকটা রোদ বাইরে, কাজেই কয়েক টাকা অতিরিক্ত ভাড়ার জন্যে বেচারাকে বেশি ঝাড়ি না দেয়াই ভালো। ইন্টারকমে অথবা খালি গলায় হাঁক ছেড়ে কাজের ছেলেটাকে ডাকুন। সব বোঝা ওর ঘাড়ে চাপাবেন না। বারো কেজি নিজে বহন করুন। এগারো কেজি ওকে দিন। তারপর লিফট অথবা সিঁড়ি বেয়ে নিজের ঘরে চলুন। কপাল ভালো বউ দু'জন ওপরে নিজের ঘরে আছে। ওদের বহন করতে হলে খবরই ছিলো।

ঘরে ঢুকেই এলিয়ে পড়ুন। জিভ বার করে এমন ভঙ্গি করুন যে হিট স্ট্রোকে মারা পড়ছেন। আলগোছে বাম বা ডান চোখের পাতা খুলে দেখুন, স্ত্রীদের ওপর আপনার অ্যাক্টিঙের কী আসর পড়ছে। উল্লেখ্য যে, আপনার প্রতি তাদের ভালোবাসার মিটার রিডিং নেয়ার এটি একটি সুবর্ণ সুযোগ। তারা যদি যথোচিত উৎকণ্ঠা না দেখায় তাহলে অ্যাকটিঙের ভলিউম বাড়িয়ে দিন। এক ফাঁকে চিঁ চিঁ করে জানান যে বাজারের ব্যাগে লেবু, চিনি আর লবণ আছে। ফ্রিজে বরফ আছে। অতঃপর ঠান্ডা এক গ্লাস লেবুর শরবৎ ধীরে সুস্থে পান করতে করতে টিভি ছেড়ে চ্যানেল টু-তে টারজানা খানের টানটান খবর পরিবেশনা উপভোগ করতে থাকুন।

কী রান্না হবে, এটা নিয়ে সিদ্ধান্ত জানাতে গিয়ে বিপদে পড়বেন না। আপনার দুই স্ত্রী, যথাক্রমে বড় বউ ও ছোট বউকে এ নিয়ে বিবাদ করার সুযোগ দিন। এসব ঝগড়া আপনার দাম্পত্য জীবনে কোলেস্টেরোল ঠিক রাখবে। পকেট থেকে এমপিথ্রি প্লেয়ারের বিচি বার করে কানে গুঁজে শুনতে থাকুন শিরীনের "না জেনে বুল বুজ্জো না" কিংবা লোকজ "আমার দিল খাড়িয়া নিলো রে ভাবা বান্ডারি"। এমপিথ্রি প্লেয়ার না থাকলে কানে ছিপি বা তুলা গুঁজে চেহারায় একটি শ্রান্তিক্লিষ্ট, বিপন্ন, মুমূর্ষু অভিব্যক্তি ফুটিয়ে দেখে চলুন টারজানা খানকে।

আপনার বড় বউ ভাজাকাঠি হাতে রান্নাঘর থেকে বেরিয়ে উত্তেজিত ভঙ্গিতে আপনাকে একটা কিছু বলছে। তার পরনে আলুথালু অ্যাপ্রন । চোখের পলকে চ্যানেল পাল্টে ডিসকভারি চ্যানেল ধরুন। তারপর মুগ্ধ, ভীতচকিত দৃষ্টিতে তার দিকে তাকিয়ে আপনার মাথা ওপরে নিচে নাড়ুন কিছুক্ষণ। এতে করে তার উত্তেজনা কিছুটা প্রশমিত হলেও হতে পারে। সে আবার রান্নাঘরে ঢুকে পড়লে আবার চ্যানেল টু-তে টারজানা খানের খবর দেখতে থাকুন।

অচিরেই আপনার ছোটবউ রান্নাঘর থেকে বেরিয়ে আসবে। কপাল ভালো এখন কমার্শিয়াল চলছে টিভিতে। বড় বউয়ের সাথে আচরণ পুনরাবৃত্ত করুন। প্রয়োজনে গাল টিপে তাকে আদর করে দিন। ড্যাম, কমার্শিয়াল শেষ, জলদি চ্যানেল পাল্টান!

আধঘন্টা পর কান থেকে এমপিথ্রি প্লেয়ারের বিচি/ছিপি/তুলা বার করে হাই তুলে একটা টাওয়েল নিয়ে গোসল করতে ঢুকে পড়ুন। গান গাইতে গাইতে সহীহ পদ্ধতিতে পাকসাফ হোন। তারপর বেরিয়ে এসে এক কাপ চায়ের জন্যে মিহি আবদার ধরুন। আবদার জানানোর আগে কানে আবারও এমপিথ্রি প্লেয়ারের বিচি/ছিপি/তুলা ঢোকাতে ভুলবেন না। মিনিট পাঁচেক গালমন্দ শোনার পর গোমড়া মুখে বড় বউ এক কাপ চা নিজের হাতে করে নিয়ে এলে তাকে জড়িয়ে ধরে নষ্টামো করার হালকা উদ্যোগ নিন। তারপর কিল হজম করে বাগস অ্যান্ড ড্যাফি শো দেখতে বসে পড়ুন।

লুনি টুনস শেষ হয়ে গেলে ঘরে ঢুকে ব্রাউজার খুলে সচলায়তনে লগ ইন করুন। নতুন কী কী লেখা এসেছে দেখুন এক নজরে। সংসারে এক সন্ন্যাসীর নতুন কোন কামরাঙা ছড়া এলে পড়ে ফেলুন। নিজের মনে কোন খাইষ্টা ছড়ার আভাস এলে ড্রাফট করে রাখুন। নিরীহ কয়েকটি পোস্টে কিছু দুষ্টু মন্তব্য দিয়ে ব্যাপারগুলোকে ভিন্ন, বদ খাতে চালিয়ে দেয়ার একটা অপচেষ্টা করুন। এর মধ্যে আবারও আবছা শোরগোল এমপিথ্রি প্লেয়ারের বিচি/ছিপি/তুলা ছাপিয়ে কানে এলে তাড়াতাড়ি মেইল খুলুন। বিড়বিড় করে অফিসের কাজ নিয়ে উৎকণ্ঠা প্রকাশ করতে থাকুন। ছোট বউ এসে থমথমে মুখে খাবার তৈরির বার্তা জানালে তাকেও জড়িয়ে ধরে নষ্টামোর উদ্যোগ নিন। আবারও কিল হজম করে দীর্ঘশ্বাস ফেলে টেবিলে বসে পড়ুন।

খাবার যা রান্না হয়েছে গরমাগরম খেয়ে নিন। কোন অনুযোগ, অভিযোগের চিন্তা মাথায় আনবেন না। কান তো বন্ধই আছে, চোখও বন্ধ করে খেয়ে যান। বোবার শত্রু নাই।

1 comment:

  1. এই রেসিপি তো বাসায় চেষ্টা করে দেখতেই হবে ভাবছি।হাঃ হাঃ হাঃ।

    ReplyDelete

রয়েসয়েব্লগে মন্তব্য রেখে যাবার জন্যে ধন্যবাদ। আপনার মন্তব্য মডারেশন প্রক্রিয়ার ভেতর দিয়ে যাবে। এর পীড়া আপনার সাথে আমিও ভাগ করে নিলাম।