Sunday, December 02, 2007

প্রবাসে দৈবের বশে ০২৩

আজ থেকে প্রায় বছর ছয়েক আগে হঠাৎ খুব নিঃসঙ্গ হয়ে পড়তে হলো। সে এক দুর্বিষহ অনুভূতি, মনে হয় বিরান তেপান্তরের মাঝে দাঁড়িয়ে আছি।

নিঃসঙ্গতা কাটানোর জন্য প্রথম ঔষধ হতে পারে ব্যস্ততা। ব্যস্ত ছিলাম এমনিতেই, ব্যস্ততর হয়ে পড়লাম। এটা করি, সেটা শিখি, অমুক জায়গায় যাই, তমুক সংঘে কাজ করি। কাজ হতে চায় না।

সময়ের সাথে নিঃসঙ্গতার তীব্রতা কমে আসে, বোধ করি আসক্তিও জন্মায় তার প্রতি। একদিন মনে হলো, অন দিস রক আই উইল বিল্ড মাই চার্চ, এই নিংসঙ্গতার প্রস্তরেই তাহলে মন্দির রচিত হোক। যা কিছু নিয়ে ব্যস্ত ছিলাম সাময়িক নিদান হিসাবে, সেগুলির প্রতি একটা ভালোবাসা জন্মে গেলো। নিজের মতো করে চলি, ফিরি, আর মাঝে মাঝে লিখি। নিঃসঙ্গতার অনুভূতিটাও ভয়ঙ্কর থেকে ধীরে ধীরে মৃদু হয়ে চেনা মানুষের মতো হয়ে পড়লো, হয়তো রোজই দেখি, কিন্তু গা করি না।

প্রবাসের শীতের শুরুতে কিন্তু মাঝে মাঝে এই বোধ আবারও ফিরে আসে। হয়তো রাতে ঘুম ভেঙে গেলে সেই প্রাচীন অতীত নিঃসঙ্গতাকে দেখি, নিরভিমান বিতাড়িত বেড়ালের মতো আবারও পথ চিনে ফিরে আসে আমার কাছে, অন্ধকারে নীরব জ্বলন্ত চোখ নিয়ে তাকিয়ে থাকে আমার দিকে।


[]

No comments:

Post a Comment

রয়েসয়েব্লগে মন্তব্য রেখে যাবার জন্যে ধন্যবাদ। আপনার মন্তব্য মডারেশন প্রক্রিয়ার ভেতর দিয়ে যাবে। এর পীড়া আপনার সাথে আমিও ভাগ করে নিলাম।