Wednesday, September 19, 2007

নতুন ধাঁচের সুসংবাদ

নিউ জার্সির কীন বিশ্ববিদ্যালয়ের সহকারী রেজিস্ট্রার আরিফ ২০০৪ সালে বিশ্ববিদ্যালয়ে স্নাতকোত্তর ছাত্র হিসেবে অধ্যয়নরত ছিলেন। সে সময়ে ডিজিটাল গল্পকথন শীর্ষক একটি কনফারেন্সে তিনি তাঁর নিজের ডিজিটাল গল্পটি উপস্থাপন করেন যা অনেকের দৃষ্টি আকর্ষণ করতে সমর্থ হয়। আরিফের ডিজিটাল গল্পটি ছিলো ১৯৭১ সালে বাংলাদেশে ঘটে যাওয়া ইতিহাসের নৃশংসতম মানবহত্যা নিয়ে।

আরিফের ডিজিটাল গল্পটি দেখে তাঁর সাথে যোগাযোগ করেন কীন বিশ্ববিদ্যালয়ের হলোকাস্ট অ্যান্ড জেনোসাইড স্টাডিজ বিভাগের এককালীন সভাপতি বার্নার্ড ভাইনশ্টাইন। তিনি এই মর্মান্তিক ঘটনা সম্পর্কে আরো জানতে নিজের আগ্রহ প্রকাশ করেন। আরিফ তাঁকে কিছু গুরুত্বপূর্ণ দলিল ও সামান্য কিছু ভিডিও ফুটেজ সংগ্রহ করে দেন।

প্রাথমিক সে সব উপকরণ দেখে শোকস্তব্ধ ভাইনশ্টাইন সিদ্ধান্ত নিয়েছেন, ১৯৭১ এর এই হত্যাযজ্ঞের ওপর একটি কোর্স তিনি কীন বিশ্ববিদ্যালয়ে চালু করবেন। সম্ভবত এটি হবে পৃথিবীতে প্রথম কোন বিশ্ববিদ্যালয়ে আমাদের একাত্তরের হত্যাযজ্ঞ নিয়ে পূর্ণাঙ্গ স্নাতকোত্তর কোর্স।

আমরা গান গাই, মানুষ মানুষের জন্যে, জীবন জীবনের জন্যে। কিন্তু নিজের দেশের ইতিহাসের এত বড় একটা ঘটনাকে নিজেদের পাঠ্যসূচীতে সুশিক্ষার ব্যবস্থা করতে পারি না, রাজাকারআলবদরশিয়ালকুকুর এসে তা নোংরা করে রেখে যায়, ভাইনশ্টাইনেরা কয়েকটা দলিল আর কিছু ভিডিও ফুটেজ দেখে চোখ মুছে একটা মাস্টার্স কোর্স শুরু করার উদ্যোগ নেয় অন্য দেশে, অন্য সমাজে, অন্য বিশ্ববিদ্যালয়ে।

হায়।


[]

No comments:

Post a Comment

রয়েসয়েব্লগে মন্তব্য রেখে যাবার জন্যে ধন্যবাদ। আপনার মন্তব্য মডারেশন প্রক্রিয়ার ভেতর দিয়ে যাবে। এর পীড়া আপনার সাথে আমিও ভাগ করে নিলাম।