Wednesday, March 21, 2007

বইপাগল: Collapse ... সব কিছু ভেঙে পড়ে




বই বা বউয়ের সান্নিধ্য শয়নে মধুরতর ... বলেছেন হিমু৷ চামে একটু নিজের ঢোলে দুইটা বাড়ি দিয়ে নিলাম৷ বুঝতেই তো পারেন৷ গরীবের আত্মমার্কেটিং৷ নিজেকে যদি নিজে বেচতে না পারি তো অন্য কেউ এসে বেচে দিবে৷

বউয়ের অবর্তমানে বইকে নিয়েই শুতে যাই, কিন্তু ইদানীং খুব দৌড়ের উপর আছি৷ শুলেই ঘুমিয়ে পড়ি৷ কপাল ভালো, বউ নাই৷

বাধ্য হয়েই এখন বসে পড়ি৷ চলার পথে গাড়িতে বসে পড়ি বেশিরভাগ সময়৷ খারাপ লাগে না৷ ঘন্টায় একশো কিলো গতিতে ছুটতে ছুটতে যেন একশো কিলো গতিতেই পড়ছি জ্যারেড ডায়মন্ডের কোলাপ্স৷ পড়া এখনো চলছে, কিন্তু মাঝপথেই লিখতে ইচ্ছা করছে একটা কিছু৷

জ্যারেড ডায়মন্ডের গানস, জার্মস অ্যান্ড স্টীল নিয়ে একটা কিছু লিখেছিলাম, কোলাপ্স হচ্ছে ঐ বইটার উল্টো পথে চলে লেখা৷ কয়েকটি বিশেষ সমাজ কেন ধ্বংস হয়ে গেলো, কেন কয়েকটি বিশেষ সমাজ ধ্বংসের মুখ থেকে ফিরে আজ উন্নতবিশ্বের কাতারে দাঁড়িয়ে, কোন বিশেষ কারণগুলো একটা সমাজকে ধ্বংসের মুখে ঠেলে দিতে পারে, এমন সব ব্যাপার নিয়েই বইটা লেখা৷ শুরু হয়েছে ইস্টার দ্বীপ দিয়ে, তারপর একে একে আনাসাজি, মায়া, উত্তর আটলান্টিকের নরওয়েজীয় বসতি, গ্রীনল্যান্ডে স্ক্যান্ডিনেভীয় ও ইনুইত সমাজ, রুয়ান্ডার গণহত্যা, হিসপানিওলা দ্বীপের দুপ্রান্তে দুই বর্তমান নিয়ে হাইতি আর দোমিনিকান রিপাবলিক, সবশেষে চীন৷ এরই এক ফাঁকে সফল তিকোপিয়া আর তোকুগাওয়া আমলের জাপানের সাফল্যের কথাও এসেছে৷

জ্যারেড ডায়মন্ডের লেখা পড়তে ভালোবাসি, কারণ এই ব্যাটা প্রশ্ন জাগিয়ে তোলে মনের মধ্যে৷ কেন এমন হলো, কেন অন্যরকম হলো না, এ প্রশ্নগুলোর উত্তরই খুঁজে পাই তার লেখায়৷

এর আগে গানস, জার্মস অ্যান্ড স্টীল থেকে টুকে কিছু লিখবো ভাবছিলাম, কিন্তু সময় পাচ্ছিলাম না৷ কোলাপ্স থেকে টুকে কিছু লেখার কড়ারও করছি আগের মতোই৷ বিশেষ করে ইস্টার দ্বীপ আর রুয়ান্ডা নিয়ে৷



No comments:

Post a Comment

রয়েসয়েব্লগে মন্তব্য রেখে যাবার জন্যে ধন্যবাদ। আপনার মন্তব্য মডারেশন প্রক্রিয়ার ভেতর দিয়ে যাবে। এর পীড়া আপনার সাথে আমিও ভাগ করে নিলাম।