Sunday, October 15, 2006

জরিপবিমুখতা


আজকের প্রথম আলো যাঁরা পড়েছেন, তাঁরা হয়তো খেয়াল করবেন, সেখানে অনলাইন জরিপ বাক্সটির ওপরে আর নিচে দু'টি সংখ্যা মুদ্রিত আছে৷ একটিতে বলা আছে, প্রথম আলোর অনলাইন সংস্করণের পাঠকসংখ্যা ২৬৯, ৩৮৬ জন, আর জরিপে অংশ নিয়েছেন ২,৭৩৪ জন৷

এটি শুধু আজকের ব্যাপারই নয়, প্রত্যেক দিনই চিত্রটি এরকম৷ গড়ে শতকরা ১ জন অনলাইন জরিপে অংশগ্রহণ করেন৷

ওয়েবসাইটে অনলাইন জরিপটির অবস্থান বেশ স্ট্র্যাটেজিগত গুরুত্বপূর্ণ জায়গায়৷ সেটি সহজেই দৃষ্টি কাড়ে, এবং রাজনীতিসচেতন বাংলাদেশীদের জন্য চিন্তার খোরাক কিছু প্রশ্ন সেখানে থাকে৷ ইতিবাচক, নেতিবাচক এবং খামোশবাচক তিনটি অপশন সেখানে আছে৷ একটি ক্লিক করলেই জরিপে অংশগ্রহণ করা যায়৷ কিন্তু তবুও দেশে-বিদেশে [দেশে খুবই কম হওয়ার কথা] যাঁরা অনলাইনে প্রথম আলো পড়েন, তাঁদের প্রতি ১০০ জনে ৯৯ জন ঐ ক্লিকটি দেয়ার পরোয়া করেন না৷

জরিপের বিষয়বস্তু একেবারে পানসে হলে এমনটি হতেই পারে৷ কিন্তু দিনের পর দিন, মাসের পর মাস সে পানসেমি কাটবে না, তা হতে পারে না৷ সিনেমা পাতা খুলে পপি কী দিয়ে দুপুরে ভাত খায়, সেটা পড়ার সময় যদি মানুষের থাকে, তাহলে জরিপে অংশগ্রহণের জন্যও সময় থাকার কথা৷ প্রবাসে ব্যস্ত জীবনের ফাঁকে যদি শুধু টুক করে শিরোনামগুলিতে লোকে চোখ বুলিয়ে যান, তাহলে অবশ্য ব্যাপারটার একটা ব্যাখ্যা মেলে, কিন্তু তবুও মনটা খচখচ করে, একটা মাত্র ক্লিকই তো!

আরেকটি উত্তর থাকতে পারে, জাতিগতভাবে আমাদের জরিপবিমুখতা৷ টেলিভিশন ক্যামেরা নেই এমন কোথাও যেচে পড়ে নিজের মত এত স্বল্প আয়াসে জাহির করে আসার মতো তুচ্ছ কাজে সময় [সে যতোই কম লাগুক না কেন] ব্যয় করার স্পৃহা আমাদের নেই৷ তাই পত্রিকাগুলির অনলাইন জরিপ অস্পৃষ্ট পড়ে থাকে৷

অবশ্য এমন হতে পারে, প্রবাসীরা এমন অসংখ্য জরিপের অনুরোধ প্রত্যেকদিন পেয়ে থাকেন৷ জরিপে জরিপে তাঁরা জর্জরিত৷ জরিপ কথাটা শুনলেই তাঁদের রগ গরম হয়ে যায়৷ এটি জরিপবিমুখতার মূল কারণ৷

কিন্তু তার পরও কথা থেকে যায়৷ সেটা হচ্ছে, এখানে একটু গুঁতিয়ে আসুন৷ কয়েকদিন ধরে বারবার একই জিনিস পেস্ট করছি, আপনাদের তাছির হয় না৷ এইবার লন৷ জরিপে ঢুকেন৷ ধন্যবাদ৷


No comments:

Post a Comment

রয়েসয়েব্লগে মন্তব্য রেখে যাবার জন্যে ধন্যবাদ। আপনার মন্তব্য মডারেশন প্রক্রিয়ার ভেতর দিয়ে যাবে। এর পীড়া আপনার সাথে আমিও ভাগ করে নিলাম।